সারা বিশ্বে স্মার্টফোনের বিক্রি বেড়েই চলছে। ২০১৬ সালের প্রথম তিন মাসে গত বছরের এই সময়ের তুলনায় ৩.৯ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। মনে হয় প্রতিদিনই নতুন নতুন মোবাইল ফোন বাজারে আসছে। বর্তমানে মোবাইল ফোনের বাজার তীব্র প্রতিযোগিতার মুখে। কয়েক বছর আগে মোবাইল ফোনের বাজারে শীর্ষে ছিল নকিয়া, মোটোরলা, এলজির মতো ব্র্যান্ডগুলো।

গবেষণা প্রতিষ্ঠান গার্টনারের তথ্য অনুযায়ী, অ্যাপল ও স্যামসাং এখন স্মার্টফোনের বাজারের শীর্ষে থাকলেও অন্যান্য কয়েকটি ব্র্যান্ডও দ্রুত উঠে আসছে। ২০১৬ সালের প্রথম তিন মাসের স্মার্টফোন বিক্রির একটি তালিকা প্রকাশ করেছে গার্টনার। এই তালিকায় শীর্ষ ৫-এ রয়েছে যথাক্রমে স্যামসাং, অ্যাপল, হুয়াওয়ে, অপো, শিয়াওমি।

১। স্যামসাংঃ দক্ষিণ কোরিয়ার স্মার্টফোন নির্মাতা স্যামসাং স্মার্টফোনের বাজারে শীর্ষে। এ বছরের প্রথম তিন মাসে ৮ কোটি ১১ লাখ ৮৬ হাজার ৯০০টি মোবাইল সেট বিক্রি করে বাজারের ২৩ দশমিক ২ শতাংশ দখল করেছে স্যামসাং, গত বছরের প্রথম প্রান্তিকে যা ছিল ২৪ দশমিক ১ শতাংশ। অবশ্য গার্টনার বলছে, বছরের প্রথম প্রান্তিকে অ্যাপলের চেয়ে খানিকটা এগিয়ে রয়েছে স্যামসাং।

২. অ্যাপলঃ গার্টনারের পরিসংখায় দেখা যাচ্ছে যে, ধীরে ধীরে অ্যাপলের বিক্রি কমে যাচ্ছে।  বর্তমানে মোবাইল বাজারে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে অ্যাপল। অ্যাপলের দখলে রয়েছে বাজারের ১৪ দশমিক ৮ শতাংশ, যা ড়ত বছরের প্রথম প্রান্তিক থেকে ৩ শতাংশ কম। যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে আইফোন বিক্রি ভাল থাকলেও উন্নয়নশীল দেশগুলোর বাজারে খুবই কম।

Gartner smart phone market 1৩। হুয়াওয়েঃ অনেকটা হঠাৎ করেই স্মার্টফোনের বাজারে হুয়াওয়ের অবস্থান শক্ত হয়েছে। বর্তমানে তিন নম্বরে রয়েছে চীনা এই ব্র্যান্ড। নিজ দেশের পাশাপাশি ইউরোপ, যুক্তরাষ্ট্র ও আফ্রিকার বাজারে হুয়াওয়ের কদর বাড়ছে। গার্টনারের হিসাব অনুযায়ী, বছরের প্রথম প্রান্তিকে ২ কোটি ৮৮ লাখ ৬১ হাজার ইউনিট ফোন বিক্রি করেছে হুয়াওয়ে। বর্তমানে হুয়াওয়ের বাজার দখল দাঁড়িয়েছে ৮ দশমিক ৩ শতাংশ।

৪। অপোঃ আরেক চীনা ব্র্যান্ড অপো প্রথম প্রান্তিকে চমক দেখিয়েছে। গার্টনারের হিসাব অনুযায়ী, এ বছরের প্রথম তিন মাসে স্মার্টফোনের বিক্রি বেড়েছে ১৪৫ শতাংশ। এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে অপো ফোনের বিক্রি বেড়েছে ১৯৯ শতাংশ। প্রথম প্রান্তিকে অপো ১ কোটি ৬১ লাখ ১২ হাজার ৬০০ স্মার্টফোন বিক্রি করেছে।

gartner samrt phone market 2৫। শিয়াওমিঃ চীনের আরেক স্মার্টফোন নির্মাতা শিয়াওমির অবস্থান পঞ্চম। চীনের আভ্যন্তরীণ বাজারে এর জনপ্রিয়তা অনেক বেশী। গার্টনারের হিসাব অনুযায়ী, বছরের প্রথম প্রান্তিকে ১ কোটি ৫০ লাখ ৪৮ হাজার শিয়াওমি ফোন বিক্রি হয়েছে। বর্তমানে বাজারের ৪ দশমিক ৩ শতাংশ শিয়াওমির দখলে। ধীরে ধীরে এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলগুলোতে শিয়াওমির চাহিদা  বেড়েই চলছে।  বাংলাদেশেও বর্তমানে শিয়াওমির বিক্রি বাড়ছে।

 

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY