Credit:- Happn

পথচলতি অন্য যাদের যাদের ফোনে রয়েছে এই অ্যাপ তাদের ছবি ও প্রোফাইল সঙ্গে সঙ্গে ভেসে উঠবে আপনার ফোনে। উলটোটাও ঘটবে অর্থাৎ আপনার ছবি এবং প্রোফাইল ইনফো ভেসে উঠবে তাদের ফোনে। এর পর শুরু হবে আসল খেলা।

কোন অফিসের রিসেপশনে বসে আছেন অথবা কোনও কফি শপে একা বসে কফিতে চুমুক দিচ্ছেন। তখনও কিন্তু ধারেকাছে ‘হ্যাপেন’ অ্যাপ ইউজার যদি কেউ থেকে থাকেন জেগে উঠবে এই অ্যাপ। সবচেয়ে মজার কথা হল যতবার আপনি এবং অন্য কোনও ইউজার মুখোমুখি হবেন, ততবারই কিন্তু মেসেজ পাঠাবে এই অ্যাপ এবং জানিয়ে দেবে যে কতবার এইভাবে দেখা হয়েছে আপনাদের।

সেই ছবি দেখে লাইক পাঠাতে পারেন এবং চ্যাট শুরু করতে পারেন অ্যাপের মাধ্যমে। হ্যাপেন অ্যাপ চেষ্টা করে যথাসম্ভব সমমনস্ক মানুষের সঙ্গে আলাপ-পরিচয় ঘটাতে। অর্থাৎ আপনার হবি বা ভাললাগার সঙ্গে যদি পথলতি কারও ভাললাগা মিলে যায় তবে তার ছবি/প্রোফাইল অগ্রাধিকার পায়। সবকিছুই শুভবুদ্ধিসম্পন্ন সুস্থ মানুষের জন্য তৈরি হয়, বিকৃতমস্তিষ্কদের জন্য নয়।

হতেই পারে যে কাজের তাড়ায় হয়তো আপনি প্রথম দু’একবার খেয়াল করেননি, তাই প্রোফাইলের পাশে লেখা থাকে এই ব্যক্তির সঙ্গে আগে আপনার কতবার দেখা হয়েছিল। ঠিক তেমনই প্রথম কারও সঙ্গে দেখা হলে তাও লেখা থাকবে অ্যাপ মেসেজে। তবে সবকিছুর শেষে একটি ‘কিন্তু’ রয়েছে। এই অ্যাপের মাধ্যমে তখনই ইউজাররা একে অপরের সঙ্গে চ্যাট করতে পারেন যদি একে অপরকে ‘হার্ট’ লাইক দেন।

এক্ষেত্রে অত্যন্ত দায়িত্বজ্ঞানসম্পন্ন কাজ করেছে এই অ্যাপটি যাতে ‘স্টকিং’-এর মতো গর্হিত অপরাধ না ঘটে। তার পরেও যদি কেউ কারও পিছু নেয় তবে তাকে সনাক্ত করে পুলিশে খবর দেওয়াও বেশ সহজ হবে কারণ অ্যাপে তার ছবি এবং বেসিক প্রোফাইল ইনফরমেশনও থাকবে।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY