ঢাকায় মধ্যরাতে ইন্টারনেট বন্ধের মহড়া!!!!!

Credit:- ICT News

জরুরী পরিস্থিতিতে ইন্টারনেট সেবা বন্ধের প্রস্তুতি হিসেবে রাজধানীর রমনা এলাকায় মহড়া চালিয়েছে বিটিআরসি ও ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (আইসিপিএবি)।সোমবার (০১ আগস্ট) দিবাগত মধ্যরাতে ৩০ মিনিট চারটি ইউআরএল ( ইউনিফর্ম রিসোর্স লোকেটর) এবং অন্যান্য ইন্টারনেট ডাটা বন্ধের নির্দেশনা বাস্তবায়ন করেছে ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (আইসিপিএবি)।

বিটিআরসি কর্মকর্তারা বলছেন, সাম্প্রতিক জঙ্গি হামলার মতো জরুরি পরিস্থিতি মোকাবিলায় এ মহড়ার আয়োজন। এক মাস আগে গুলশানে হামলাকারী জঙ্গিরা ইন্টারনেটের মাধ্যমে ছবি অনলাইনে প্রকাশ করেছিল, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর নির্দেশে তখন বিটিআরসিকে ইন্টারনেট সেবা বন্ধে বেগ পেতে হয়। বিটিআরসির সচিব সরওয়ার আলম বিকেলে বলেন, মহড়ার সময় কনটেন্ট, ভয়েস কল এবং ডাটা (ইন্টারনেট সার্ভিস) বন্ধ রাখা হয় । তবে কনটেন্টগুলোর নাম বলেননি তিনি।

এই মহড়া সফল হয়েছে দাবি করে বিটিআরসি‘র ওই কর্মকর্তা বলেন, জরুরি পরিস্থিতিতে ডাটা ও টেলিযোগাযোগ সেবা বন্ধের এটি একটি সফল অভিজ্ঞতা।

এই মহড়ায় সকল আইআইজি (ইন্টারন্যাশনাল ইন্টারনেট গেটওয়ে), আইএসপি (ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার), ওয়াইম্যাক্স (ওয়ার্ল্ডওয়াইড ইন্টারঅপারেবিলিটি ফর মাইক্রোওয়েভ অ্যাকসেস) এবং মোবাইল ফোন অপারেটরগুলো অংশ নেয়।

বিটিআরসির এক কর্মকর্তা বলেন, রমনায় বিটিআরসি ভবনে মধ্যরাতে একটি বিশেষ টিম মহড়া পর্যবেক্ষণ করেন।

বিটিআরসি এবং আইএসপিগুলো জানায়, একটি সংবাদপত্রের অনলাইন ভার্সনের একটি ইউআরএল, একটি আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমের বাংলা ভার্সনের একটি ইউআরএল, একটি পর্ন সাইট এবং অপর একটি ডোমেইন বন্ধ রাখা হয়েছিল।

জননিরাপত্তা নিশ্চিত ও জঙ্গিবিরোধী অভিযানের প্রস্তুতি হিসেবে সোমবার বিকেল থেকে মধ্যরাতের যেকোনো সময় কিছু এলাকায় ইন্টারনেট ও টেলিযোগাযোগ সেবা বন্ধ রাখার প্রস্তুতি হিসেবে এই মহড়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল।

রাজধানীর রমনা ছাড়াও মতিঝিল, মোহাম্মদপুরের লালমাটিয়া এবং উত্তরা থার্ড ফেইজ এলাকায় এই মহড়া চালানোর কথা মোবাইল ফোন অপারেটর এবং আইএসপিদের জানানো হয়।বর্তমানে দেশে ২৯টি ইন্টারনেট গেটওয়ে প্রতিষ্ঠান এবং ৪৯০টি আইএসপি ইন্টারনেট সেবা দিয়ে আসছে।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY