সিঙ্গাপুরে সরকারি অফিসে ইন্টারনেট ব্যবহার বন্ধ

3

সরকারি কাজে ব্যবহৃত কম্পিউটার ইন্টারনেট থেকে বিচ্ছিন্ন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সিঙ্গাপুর। আগামী বছরের মে মাস থেকে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে বিবিসি।

সিঙ্গাপুর সরকারের এ পদক্ষেপের পেছনে রয়েছে নিরাপত্তা সংক্রান্ত ঝুঁকি। দেশটির সরকার জানিয়েছে, ইন্টারনেটের কারণে ইমেইল ও শেয়ার্ড ডকুমেন্ট প্রায়ই নিরাপত্তা ঝুঁকিতে পড়ছে। আর এ থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার জন্যই তারা এ উদ্যোগ নিয়েছে। এ বিষয়ে সিঙ্গাপুরের সরকারি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, সরকারি কর্মকর্তারা কর্মক্ষেত্রে ইন্টারনেট ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা ছাড়াও যে কোনো কাজের ডকুমেন্ট ব্যক্তিগত ইমেইলে নিতে পারবেন না।

সাম্প্রতিক এ সিদ্ধান্তটি আদতে ভালো হবে নাকি সিঙ্গাপুরকে পেছনে নিয়ে যাবে এ নিয়ে পক্ষে-বিপক্ষে ব্যাপক জনমত গড়ে উঠেছে। বহু মানুষই বলছেন এটি একটি খুবই ভালো সিদ্ধান্ত হয়েছে। অন্যদিকে এ সিদ্ধান্ত সিঙ্গাপুরের তথ্যপ্রযুক্তি খাতকে পেছনে নিয়ে যাবে বলে মনে করছেন অনেকেই। এছাড়া এ সিদ্ধান্ত সব ধরনের কর্মকর্তাদের ক্ষেত্রে প্রয়োগ করার যৌক্তিকতাও নেই বলে মনে করছেন অনেকে। এক্ষেত্রে শিক্ষকদের এ সিদ্ধান্তের বাইরে রেখে আসা উচিত বলে মনে করছেন অনেকেই। সিঙ্গাপুর সরকারের এ সিদ্ধান্তের ফলে দেশটি লক্ষাধিক কম্পিউটার ইন্টারনেটবিহীন হয়ে যাবে।

তবে সরকারের প্রযুক্তি উন্নয়নবিষয়ক প্রতিষ্ঠান আইডিএ বলছে, এ কারণে যোগাযোগে কোনো সমস্যা তৈরি হবে না। প্রতিষ্ঠানটি জানায়, সরকারি কর্মকর্তাদের কম্পিউটার ইন্টারনেটবিহীন করার অন্যতম প্রধান কারণ হলো সাইবার আক্রমণ থেকে রেহাই পাওয়া এবং ম্যালওয়্যারের বিস্তার রোধ করা। এ বিষয়ে আইডিএর এক মুখপাত্র জানান, ‘আমরা কিছু সরকারি কর্মকর্তাদের জন্য ওয়ার্কস্টেশন থেকে পৃথক উপায়ে ইন্টারনেটে প্রবেশের উপায় নিয়ে কাজ করছি। এটি এক বছরের মধ্যেই অন্যান্য সরকারি কর্মকর্তাদের জন্যও কার্যকর করা হবে।

আগামী বছরের মে মাসে সব সরকারি কর্মকর্তাদের এ সিদ্ধান্ত কার্যকর করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।সামগ্রীকভাবে সম্পূর্ণ প্রক্রিয়ার আওতায় এক লাখ কম্পিউটারকে আনা হবে। ফলে কম্পিউটারগুলো থেকে সরকারি কর্মকর্তারা তাদের কাজের বাইরে ইন্টারনেট কিংবা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহার করতে পারবেন না। তবে তাদের ব্যক্তিগত কম্পিউটার বা ডিভাইসে এ ধরনের কোনো নিষেধাজ্ঞা থাকবে না।

NO COMMENTS