অ্যান্ড্রয়েড ফোনের অ্যাপ দিয়ে পাচার হচ্ছে ব্যক্তিগত তথ্য

ব্যক্তিগত বহু কাজের ক্ষেত্রে হাতের মুঠোফোনই হয়ে উঠেছে আমাদের অবলম্বন। (Personal info leaked by android app) সময় বাঁচাতে আমরা একের পর এক অ্যাপের সাহায্য নিই।  ভার্জিনিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই অধ্যাপক ডাফনে ইয়াও ও গ্যাং ওয়াং দুজনই একটি রিসার্চ টিমের সঙ্গে এই নিয়ে কাজ করছেন।

এই গবেষক দল ১১০,১৫০টি অ্যাপকে খুঁটিয়ে দেখে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্তে এসেছে। লক্ষণীয়, এর মধ্যে ১০০,২০৬টি অ্যাপ গুগল প্লে স্টোরের জনপ্রিয় অ্যাপ। গবেষক ওয়াং জানিয়েছেন, অ্যাপের নিরাপত্তাজনিত বিষয়টি নিয়ে নড়েচড়ে বসার প্রয়োজন রয়েছে।

তবে তাঁর আশা, তাঁদের গবেষণাপত্র থেকে প্রাপ্ত তথ্যের সাহায্যে সফটওয়্যার কম্পানিগুলো নতুন করে এই বিষয়ে ভাবনাচিন্তা করবে। এ ব্যাপারে আরও সচেতনতা বৃদ্ধির প্রয়োজন রয়েছে। গ্রাহকরাও কোনো ডাউনলোড করার আগে একটু সতর্ক থাকুন, সেটাও চাইছেন গবেষকরা।

পুরো দলটি বিশদে গবেষণা করে চলেছে, কেমন করে অ্যান্ড্রয়েড ফোনে ব্যবহৃত পরিচিত অ্যাপগুলোর মাধ্যমেও কেমন করে তথ্য হস্তান্তরিত হতে পারে। গবেষায় উঠে এসেছে, দুই রকম ভাবে বিপন্ন হতে পারে আপনার ব্যক্তিগত তথ্য।

প্রথমত, এমন অ্যাপ যা আসলে ম্যালওয়্যার অ্যাপ, যেটি তৈরিই করা হয়েছে সাইবার অ্যাটাকের উদ্দেশ্যে। দ্বিতীয়ত, এমন অ্যাপ যা থেকে তথ্য সহজেই বের করে নেওয়া যায়। এই অ্যাপগুলোর ক্ষেত্রে ডেভেলপারের উদ্দেশ্য সব সময় বোঝা যায় না। তবে ইচ্ছাকৃত ভাবে হোক বা অনিচ্ছাকৃত ভাবে, নিরাপত্তা ক্ষুণ্ন হওয়ার বিষয়টি কিন্তু স্পষ্টতই প্রমাণিত হয়েছে গবেষণায়।

 

NO COMMENTS