স্ক্রিন ভাঁজ করা ফোন আনছে স্যামসাং

Credit :- Samsung

ফ্লিপ ফোন থেকে বেরিয়ে আসেনি স্যামসাং। প্রতিবছরই অন্তত একটি করে ফ্লিপ ফোন আনে কোরিয়ান টেক জায়ান্ট যাতে রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড। কিন্তু অ্যান্ড্রয়েড ফোনগুলোর বিলাশ টাচ স্ক্রিন অনেক বেশি জনপ্রিয়। তবুও হয়ত নস্টালজিয়ার কারণেই ফোনগুলো বানানো হয় এবং অনেক মানুষ তা ব্যবহার করে।

প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট জিএসএমএরেনার তথ্য অনুযায়ী, নতুন ফোনের কবজাটি মাইক্রোসফটের সারফেস বুক ল্যাপটপ কাম ট্যাবলেটের মতো কাজ করবে।

ভাঁজ করার জন্য মাঝখানে যে হিঞ্জ থাকবে তা মাইক্রোসফটের সারফেস বুকের কথা মনে করিয়ে দেয়। সারফেস বুক একটি ল্যাপটপ কাম ট্যাবলেট। তবে এমন হিঞ্জের একটি অসুবিধার কথা তুলে ধরেছেন এক ব্যবহারকারী। এই অংশে বেশ ধুলো-বালি জমে যায়।

২০১৫ সালের মার্চেই স্যামসাং ঘোষণা দেয়, তারা ভাঁজ করা যায় এমন ফোন নিয়ে কাজ করবে। ‘প্রজেক্ট ভ্যালি’ নামের এক প্রজেক্টের মাধ্যমে এ ফোন নিয়ে কাজ করা হচ্ছে। গুজব রয়েছে, এমন ফোন আগামী বছর থেকেই বাজারে চলে আসবে।

২০১৩ সালে লাস ভেগাসে সিইএস মেলায় প্রথমে বাঁকানো ডিসপ্লে দেখিয়েছিল স্যামসাং। ২০১৪ সালে গ্যালাক্সি নোট এজে বাঁকানো ডিসপ্লে যুক্ত করে প্রতিষ্ঠানটি। এরপর গ্যালাক্সি এস ৭ এজ ও নোট ৭ এ বাঁকানো ডিসপ্লের ব্যবহার দেখা যায়। বাঁকানো ডিসপ্লে ও ভাঁজ করা নমনীয় ফোনের মধ্যে পার্থক্য রয়েছে।

এদিকে, চীনের স্মার্টফোন নির্মাতা শিয়াওমি ভাঁজ করা যায় এমন ডিসপ্লে তৈরি করছে বলে গুঞ্জন রয়েছে।

বাজারে উদ্ভাবনী পণ্য হিসেবে ভাঁজ করা ফোন কে প্রথম আনে, সেটাই এখন দেখার বিষয়।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY