স্যামসাং গ্রুপের প্রধান জে ইয়ং লিকে ঘুষ ও দুর্নীতির কেলেঙ্কারি অভিযোগে আজ শুক্রবার কারাগারে পাঠিয়েছেন দক্ষিণ কোরিয়ার একটি আদালত।স্যামসাং গ্রুপের প্রধান লি কুন-হির ছেলে লি জে-ইয়ং। স্যামসাংয়ের প্রধানকে গ্রেপ্তারের ঘটনা এবারই প্রথম। বর্তমান বিশ্বে বৃহত্তম স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান স্যামসাং ইলেকট্রনিকস।

স্যামসাং ইলেকট্রনিকসের ভাইস প্রেসিডেন্ট লির বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি সরকারি কিছু সুবিধার বিনিময়ে দেশটির প্রেসিডেন্ট পার্ক গিউন হের ঘনিষ্ঠ বন্ধু চোই সুন-সিলের অলাভজনক কোম্পানিকে ৩ কোটি ৬৩ লাখ ডলার (৪৩ বিলিয়ন উন) ঘুষ দিয়েছেন। এই কেলেঙ্কারির কারণে পার্লামেন্টে পার্ককে অভিশংসনের পক্ষে ভোট পড়ে।

স্যামসাংয়ের পর্যবেক্ষণকারীরা বলছেন, লির গ্রেপ্তারে স্যামসাং ইলেকট্রনিকস কোম্পানি লিমিটেড বা গ্রুপের অন্যান্য কোম্পানির দৈনন্দিন কার্যক্রমে তেমন কোনো প্রভাব পড়বে না। এ প্রতিষ্ঠানগুলো পেশাদার ব্যবস্থাপকেরা পরিচালনা করেন। তবে লি যদি দীর্ঘদিন অনুপস্থিত থাকেন, তবে তা দীর্ঘ মেয়াদে ও পরিকল্পনাগত সিদ্ধান্ত নিতে প্রভাব ফেলতে পারে।

তবে লির গ্রেপ্তারের ফলে প্রতিষ্ঠানটির তিনজন নির্বাহী কর্মকর্তার ওপর মানুষের নজর বেশি। তাঁর অনুপস্থিতিতে কে সামলাবে স্যামসাং ?

আলোচনা তিনজন নির্বাহী কর্মকর্তাকে নিয়ে।

চই গি-সাংদ্য মেন্টর: চই গি-সাং

৬৬ বছর বয়সী চই গি-সাং স্যামসাং ইলেকট্রনিকসের ভাইস চেয়ারম্যান। তিনি স্যামসাং গ্রুপের পরিকল্পনা বিভাগ দেখেন, যা মূলত কন্ট্রোল টাওয়ার হিসেবে পরিচিত।

তিনি মূলত স্যামসাং প্রধান জে ইয়ং লির মেন্টর হিসেবে পরিচিত। প্রতিষ্ঠানটির অভ্যন্তরীণ সূত্রগুলোর ধারণা, লির অনুপস্থিতিতে স্যামসাংয়ের দায়িত্ব তাঁর ওপর থাকবে। তিন দশকের বেশি সময় স্যামসাংয়ের সঙ্গে থেকে লির ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিতি পেয়েছেন তিনি। ২০১৪ সালে লির বাবার মৃত্যুর পর তাঁর (লি) দায়িত্ব নেওয়ার পুরো পরিকল্পনা তৈরি করে দেন তিনি। এর আগে তিনি স্যামসাং ইলেকট্রনিকসের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন।

মিস্টার চিপ: কুন ওহ-হুন

বর্তমানে স্যামসাং ইলেকট্রনিকসের ভাইস প্রেসিডেন্ট ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা। ৬৪ বছর বয়সী কুন ২০১২ সালে চইয়ের বদলে স্যামসাং ইলেকট্রনিকসের প্রধান নির্বাহীর দায়িত্বে আসেন। তিনি স্যামসাংয়ের প্রধান আয়ের উৎস যন্ত্রাংশ ব্যবসা বিভাগটি দেখাশোনার দায়িত্বে ছিলেন। বর্তমানে মেমোরি চিপ নির্মাতা হিসেবে এই বিভাগটি বিশ্বের শীর্ষে রয়েছে।

কুন ওহ-হুন ‘মিস্টার চিপ’ হিসেবে বেশি পরিচিত। প্রযুক্তি বিশ্বে তাঁর প্রোফাইল খুব বেশি ভারী না হলেও গত বছর স্যামসাং নোট ৭ স্মার্টফোনের দুর্দশার সময় তিনি প্রতিষ্ঠানের হাল ধরেন।

দ্য সিস্টার: লি বু-জিন

হোটেল শিলা কোম্পানি লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী লি বু-জিন স্যামসাং প্রধান জে ইয়ং লিনের ছোট বোন। ৪৬ বছর বয়সী লি বু-জিন স্যামসাংয়ের হোটেল শিলা পরিচালনা করেন। ভাই গ্রেপ্তার হলে স্যামসাংয়ে আরও বড় পদে যাবেন শিলা—এই গুঞ্জন উঠলে তাঁর প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম বাড়ে।

অবশ্য স্যামসাংয়ের পর্যবেক্ষণকারীরা এ গুঞ্জন উড়িয়ে দিয়ে বলেছেন, লি বু-জিনের স্যামসাং ইলেকট্রনিকসের মতো বড় কোম্পানি সামলানোর অভিজ্ঞতা নেই। এ ছাড়া কোম্পানিতে তাঁর শেয়ারও উল্লেখযোগ্য নয়। এ ছাড়া দক্ষিণ কোরিয়াতে পারিবারিক ব্যবসা নিয়ন্ত্রণে নারী হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার ঘটনাও বিরল।

প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ ওঠার পর তার পদত্যাগের দাবিতে বিক্ষোভ শুরু হয়। পার্ক গুন হে ও চোই সুন-সিল জাতির কাছে ক্ষমা চাইলেও তাদের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

তথ্যসূত্র: এএফপি

NO COMMENTS