ওয়ালটনের স্প্লিট ডিসপ্লের “প্রিমো এস ফাইভ” বাজারে

নতুন ‘প্রিমো এস ফাইভ’ফোন বাজারে আনলো ওয়ালটন। (Walton released Primo S5 with Split Display) এই ফোনটির বিশেষত্ব হচ্ছে এর ডিসপ্লেকে স্প্লিট(বিভক্ত) করা যাবে। এই ফিচারের মাধ্যমে আঙুলের ছোঁয়ায় নিচ থেকে ওপরের দিকে টেনে স্ক্রিন দুই অংশে ভাগ করা যাবে। ফলে স্ক্রিনের দুই অংশে একই সঙ্গে দুটি অ্যাপস চলবে।

৫.৫ ইঞ্চির এইচডি আইপিএস ডিসপ্লে এবং ২.৫ডি কার্ভড (বাঁকানো) স্ক্রিন হওয়ায় এস ফাইভে পাওয়া যাবে আরো জীবন্ত ছবি। চতুর্থ প্রজম্মের কর্নিং গরিলা গ্লাস ডিসপ্লেকে আঘাত ও আঁচর থেকে সম্পূর্ণ সুরক্ষা দেবে।

অ্যানড্রয়েড মার্সম্যালো ৬.০ অপারেটিং সিস্টেম পরিচালিত সেটটির কানেক্টিভিটির জন্য আছে ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ ভার্সন ৪, ইউএসবি ২, ল্যান হটস্পট, ওটিএ ও ওটিজি সুবিধা। একটি মাইক্রো সিম এবং টু-ইন-ওয়ান (ন্যানো সিম অথবা এসডি কার্ড) সুবিধার ফোনটি থ্রিজি ও ফোরজি সমর্থন করে।

প্রিমো এস ফাইভে ব্যবহার করা হয়েছে শক্তিশালী প্রসেসর ও র‌্যাম। এতে আছে উচ্চক্ষমতার ৬৪ বিট সম্পন্ন ১.৫ গিগাহার্জ গতির কোয়াড কোর প্রসেসর। স্বাচ্ছন্দ্যে বিভিন্ন অ্যাপস ব্যবহার, ইন্টারনেট ব্রাউজিং, থ্রিডি গেমিং এবং দ্রুত ভিডিও লোড ও ল্যাগ-ফ্রি ভিডিও স্ট্রিমিং সুবিধা দিতে রয়েছে দ্রুতগতির ৩ জিবি ডিডিআর-থ্রি র‌্যাম। গ্রাফিক্স হিসেবে মালি টি-৭২০ ব্যবহার করায় গেমিং হবে রোমাঞ্চকর। এতে রয়েছে ৩২ জিবি ইন্টারনাল মেমোরি। ফলে অনেক বেশি ভিডিও, ছবি, মিউজিক, অ্যাপসসহ অসংখ্য ফাইল সংরক্ষণ করা যাবে। এছাড়াও স্মার্টফোনটি ১২৮ জিবি পর্যন্ত বর্ধিত মেমোরি সাপোর্ট করবে।

ছবি তোলার জন্য রয়েছে অটোফোকাস ও এলইডি ফ্ল্যাশ সুবিধাসহ বিএসআই সেন্সরযুক্ত ১৩ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা, যার অ্যাপারচার সাইজ এফ২.২। পেছনের ক্যামেরায় ফুল এইচডি (১০৮০ বাই ১৯২০ পিক্সেল রেজ্যুলেশন) মোডে ভিডিও করা যাবে। সঙ্গে পাওয়া যাবে ফেস ডিটেকশন, ডিজিটাল জুম, সেলফ টাইমার, অটো ফোকাস, টাচ শট, শার্টার স্পিড কন্ট্রোল, ম্যানুয়াল ফোকাসিং ইত্যাদি সুবিধা।

ভিডিও কল ও সেলফির জন্য এস ফাইভে আছে এফ২.২ অ্যাপারচার সাইজের বিএসআই সেন্সরের ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা। নরমাল মোড ছাড়াও ফেস বিউটি, এইচডিআর, টাইম ল্যাপস, প্যানোরমা, স্মার্ট সিন, নাইট মোড এবং জিফের মতো আকর্ষণীয় মোডে ছবি তোলা যাবে।

এস ফাইভে ব্যবহৃত হয়েছে ৩১৫০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারি। ফলে দীর্ঘক্ষণ ব্যাটারি ব্যাকআপ মিলবে। নরমাল বা এক্সট্রিম পাওয়ার সেভিং মোড থাকায় চার্জও থাকবে দীর্ঘক্ষণ।

আইআর ব্লাস্টার থাকায় এস ফাইভ টেলিভিশন, এয়ারকন্ডিশনারসহ অন্যান্য হোম অ্যাপ্লায়ান্সের রিমোট কন্ট্রোলার হিসেবেও ব্যবহারের সুযোগ রয়েছে। ডাটা ক্লোনিং সুবিধা থাকায়, পুরোনো ফোন থেকে ছবি, অ্যাপ, কনট্রাক্টস এমনকি মেসেজসহ গুরুত্বপূর্ণ ফাইল ট্রান্সফার সহজ হবে।

স্মার্টফোনটিতে মোশন সেন্সর হিসেবে রয়েছে অ্যাকসিলেরোমিটার (থ্রিডি) ও গ্রাভেটি (থ্রিডি)। এনভায়রনমেন্ট সেন্সর হিসেবে রয়েছে লাইট (ব্রাইটনেস)। পজিশন সেন্সর হিসেবে থাকছে প্রক্সিমিটি, ম্যাগনেটিক ফিল্ড (কম্পাস)। স্মার্ট কভার সেন্সর হিসেবে রয়েছে হল সেন্সর।

এস ফাইভের অন্যান্য ফিচারের মধ্যে রয়েছে জিপিএস, নেভিগেশন সুবিধা, রেকর্ডিং সুবিধাসহ এফএম রেডিও, ফুল এইচডি ভিডিও প্লে-ব্যাক, ডিটিএস সাউন্ড সিস্টেম, ডাবল টেপ টু ওয়াক অ্যান্ড স্লিপ (Double Tap to Walk & Sleep) (স্ক্রিনে দুবার টোকা দিয়ে স্ক্রিন অন/অফ করা), ফাইভ ফিঙ্গার মাল্টি-টাচ ইত্যাদি।

উন্নত ফিচারসমৃদ্ধ এস ফাইভ স্মার্টফোনের দাম মাত্র ১৪ হাজার ৯৯০ টাকা। দেশের সকল ওয়ালটন প্লাজা ও ব্র্যান্ডেড আউটলেটে ০% ইন্টারেস্টে ৬ মাসের ইএমআই সুবিধায় কেনা যাচ্ছে সব মডেলের ওয়ালটন স্মার্টফোন। একই সঙ্গে ১২ মাসের কিস্তি সুবিধায়ও কেনার সুযোগ থাকছে। আকর্ষণীয় ডিজাইনের স্মার্টফোনটি ব্লাক ও গোল্ডেন এই দুই রঙে পাওয়া যাচ্ছে।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY