উগ্রবাদ ছড়ানো ভিডিও’র বিরুদ্ধে ইউটিউবের ‘কড়া’ অবস্থান

উগ্রবাদী ভিডিওর বিরুদ্ধে ইউটিউবের সতর্কতা জারি

প্রযুক্তি জায়ান্ট অ্যালফাবেট অধীনস্থ গুগল জানিয়েছে, সতর্কতা জারি ও অর্থ আয়ের উপায় না দিয়ে উগ্রবাদ ছড়ানো ভিডিওগুলোর বিরুদ্ধে ‘কড়া’ অবস্থান নেওয়া হবে।(youtube will take action against terror video) এমনকি যদি ওই ভিডিওগুলো স্পষ্টত কোনো নীতিমালা লঙ্ঘন না করে তাও পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

গুগলের জেনারেল কাউন্সেল কেন্ট ওয়াকার বলেন, “যখন আমরা ও অন্যরা আমাদের নীতিমালা লঙ্ঘন করে এমন কনটেন্ট শনাক্ত ও সরাতে কয়েক বছর ধরে কাজ করছি, তখন শুনতে খারাপ লাগলেও সত্য হচ্ছে যে একটি খাত হিসেবে আমাদের স্বীকার করতেই হবে যে আরও অনেক কিছু করা দরকার, এখনই।”

উগ্রপন্থী ভিডিওগুলো শনাক্ত করতে প্রযুক্তির ব্যবহার ও আরও প্রকৌশলগত সম্পদ বাড়াবে প্রতিষ্ঠানটি। ভিডিও শেয়ারিং প্লাটফর্ম ইউটিউব থেকে সন্ত্রাসবাদ ও সহিংস উগ্রপন্থী কনটেন্ট শনাক্ত করে সরাতে আরও নতুন পদক্ষেপ নেবে ওয়েব জায়ান্ট গুগল। রোববার এক ব্লগপোস্টে এ কথা বলেছে  প্রতিষ্ঠানটি।

মৌলবাদ ও উগ্রপন্থীদের নিয়োগে ব্যবহৃত কনটেন্ট শনাক্তে উগ্রপন্থী-বিরোধী গ্রুপগুলোকে সঙ্গে সমন্বয় বাড়ানো হবে বলেও জানিয়েছে গুগল।

এদিকে সম্প্রতি সন্ত্রাসবাদের প্রচারণামূলক কনটেন্ট সরাতে নিজেদের প্রচেষ্টা নিয়ে আগের চেয়ে বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ করে বিশ্বের সবচেয়ে বড় সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুক। প্রজ্ঞাপন প্রচার ও লোক নিয়োগের জন্য সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলো সামাজিক মাধ্যমটিকে ব্যবহার করছে- এমন অভিযোগে ইউরোপে রাজনৈতিক চাপের মুখে এই পদক্ষেপ নেয় মার্কিন সোশাল জায়ান্টটি।

দ্রুত এ ধরনের কনটেন্ট সরাতে ফেসবুক ইমেজ ম্যাচিং ও ভাষা বুঝতে সক্ষম এমন কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বা এআই ব্যবহার করছে, ফেসবুকের বৈশ্বিক নীতিমালা ব্যবস্থাপনা পরিচালক মনিকা বিকার্ট ও সন্ত্রাসবিরোধী নীতিমালা ব্যবস্থাপক ব্রায়ান ফিশম্যান এক ব্লগপোস্টে এ তথ্য প্রকাশ করেন।

 

NO COMMENTS