অ্যান্টি-ভাইরাস সংস্থা ম্যাকাফে তাদের বার্ষিক রিপোর্টে জানিয়েছে, ধোনি ভারতে সব থেকে বেশি সার্চ হয়। আর সুযোগ বুঝে হ্যাকাররাও বিভিন্ন ভাইরাস এই সার্চে ঢুকিয়ে দিচ্ছে। সেইসব ভাইরাস নিঃশব্দেই ব্যবহারকারীর স্মার্টফোন ও কম্পিউটারে ঢুকে পড়ছে। এর ফলে নিজেদের অজান্তেই বিপদ পড়ছে ইন্টারনেট ব্যবহারকারিরা।

খবরে বলা হয়েছে, ম্যাকাফের এই ভয়ঙ্কর লিস্টে ধোনির ঠিক পরেই আছেন লিটল মাস্টার শচীন তেন্ডুলকার। ধোনি-তেন্ডুলকার ছাড়াও সংস্থাটির ১০ জনের তালিকায় আছে ভারতীয় দলের নারী ক্রিকেটার হরমনপ্রীত কউর এবং অলিম্পিকে রুপোজয়ী শাটলার পিভি সিন্ধু ও ক্রিশ্চিয়ান রোনাল্ডোর নামও।

এই বিষয়ে ম্যাকাফের ভাইস-প্রেসিডেন্ট ভেঙ্কট কৃষ্ণাপূরণ গণমাধ্যমকে বলেন, বিনোদন হোক বা খেলা নেটিজেনদের একটা বিশাল অংশই এখন পাইরেটেড কপি ফ্রি-তে দেখতে পছন্দ করে। আর বিপদটা এখানেই লুকিয়ে থাকে। পাইরেটেড কপির বিপদের দিকগুলো আর তারা মাথায় রাখে না। ফলে কার্যত নিঃশব্দেই গুরুত্বপূর্ণ তথ্য চলে যায় হ্যাকারদের কাছে।

এ জন্য টরেন্ট হোক বা অন্যান্য পাইরেটেড ওয়েবসাইট যতটা সম্ভব এড়িয়ে যাওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন বিভিন্ন অ্যান্টি-ভাইরাস সংস্থার কর্মকর্তারা।