Online-train-ticket

বাংলাদেশ রেলওয়ে (Bangladesh Railway) অনলাইনে ও অ্যাপে (App for Train Ticket) এবং যারা ভারতে ভ্রমণ করতে যান তারা সরাসরি ভারতের আইআরসিটিসি (IRCTC Train Ticket Booking) অনলাইন পোর্টালের মাধ্যমে খুব সহজে ট্রেনের টিকিট বুক করতে পারবেন ।

আরো পড়ুন:

ভ্রমণ তারিখের ১০ দিন আগে টিকেট কেনা যাবে। দেশে প্রচলিত বিভিন্ন ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ড ও মোবাইল ব্যাংকিং রকেট (ডাচ-বাংলা) দিয়ে এই সেবা পাওয়া যাচ্ছে। এখনও বিকাশ ওয়ালেট দিয়ে টিকেট কেনার ব্যবস্থা হয়নি।

আরো পড়ুন: সকল ট্রেনের সময়সূচি, টিকেট ও ভাড়ার তালিকা

ট্রেনের টিকেট কিনতে ‘ই-সেবা’ (https://www.esheba.cnsbd.com/) ঠিকানায় গিয়ে রেজিস্ট্রেশন করে ট্রেনের সকল ট্রেনের সময়সূচি ও ভাড়া দেখা থেকে শুরু করে আপনার যাত্রার দিনে টিকেট আছে কিনা তাও জেনে নিতে পারবেন।

আরো পড়ুন: ঢাকা টু কলকাতা, কিভাবে যাবেন বাস, ট্রেন, বিমান

সেইসঙ্গে নতুন যুক্ত হওয়া সিট প্ল্যান দেখে পছন্দের আসনে টিকেট বুকিং/কেনার সুবিধা।

অনলাইনে টিকেট কেনার কিছু ধাপ পেরিয়ে আপনি ক্রেডিট কার্ড ও মোবাইল মানির মাধ্যমে টিকেট প্রাপ্তির ই-মেইল পাবেন। যেখানে আপনার টিকেটের বিস্তারিত ও সিক্রেট পাসওয়ার্ড পৌঁছে যাবে।

ভ্রমণের দিনে ট্রেন ছাড়ার ৩০ মিনিট পূর্বে ও আগেই ওই টিকেট সংগ্রহ করা যাবে।

আপনি যদি প্রথমবার টিকেট কাটেন, তাহলে অনলাইন Registration করতে হবে



Registration প্রক্রিয়াঃ (শুধুমাত্র একবার করতে হবে)।
১। প্রথমে www.railway.gov.bd ওয়েব সাইটে প্রবেশ করতে হবে।
২। ওয়েবসাইটে ঢুকে “ডান পার্শ্বের Internal E-services/আভ্যন্তরীণ ই-সেবা হতে Railway E-Ticketing service/রেলওয়ে ই-টিকিট” এর লিংক এ ক্লিক করতে হবে।
৩। Bangladesh Railway এবং CNS Ltd. লেখা ও লোগো সম্বলিত একটি নতুন ওয়েব সাইট খুলে যাবে।
৪। ওয়েব সাইটটির নীচের দিকে “Sign up” বাটনে ক্লিক করতে হবে।
৫। Create an Account” নামের নতুন একটি Page আসবে। এখানে “Personal Information” ও Extra Information” এর সংশ্লিষ্ট ঘরগুলো প্রয়োজনীয় তথ্যাদি দিয়ে পূরণ করতঃ Security code ঘরের পাশে প্রদর্শিত “Security Code” দিয়ে পূরণ করে Register বাটনে ক্লিক করতে হবে।
৬। সকল তথ্যাদি সঠিক থাকলে “Registration Successful” নামে নতুন একটি Page আসবে।
৭। ই-টিকেটিং সিস্টেম থেকে তাৎক্ষনিকভাবে আপনার প্রদত্ত ই-মেইল ঠিকানা Bangladesh Railway এর  থেকে একটি ই-মেইল পাঠানো হবে।
৮। আপনার ই-মেইল এর মেসেজ বক্সে Bangladesh Railway প্রদত্ত ই-মেইলটি খুলতে হবে। মেসেজের ভিতর রক্ষিত “Click” লিংকটিতে ক্লিক করতে হবে। এ প্রক্রিয়ার পর যাত্রীর Registration প্রক্রিয়াটি সম্পূর্ণ হবে।
ক্রয় প্রক্রিয়াঃ
১। প্রথমে www.railway.gov.bd ওয়েব সাইটে প্রবেশ করতে হবে।
২। ওয়েবসাইটে ঢুকে “ডান পার্শ্বের central E-service হতে Railway E-Ticketing service” এর লিংক এ ক্লিক করতে হবে।
৩। Bangladesh Railway এবং CNS Ltd. লেখা ও লোগো সম্বলিত একটি নতুন ওয়েব সাইট খুলে যাবে।
৪। “Log in” এর প্যানেল ই-মেইল ঠিকানা, পাসওয়ার্ড এবং সিকিউরিটি কোড পূরণ করতঃ “Log in” বাটনে ক্লিক করতে হবে।
৫। এরপর যে Pageটি আসবে তাতে “Purchase ticket”  বাটনে ক্লিক করতে হবে।
৬। এখানে যে Pageটি আসবে সে Page এ আপনার চাহিত ভ্রমণ তারিখ, প্রারম্ভিক স্টেশন, গন্তব্য স্টেশন, ট্রেনের নাম, শ্রেনী, টিকেট সংখ্যা যেভাবে রয়েছে তা পূরণ করতে হবে। এর পরের পেইজে “Registration Seat Available”  দ্বারা চাহিত টিকেট এবং এর মূল্যমান জানিয়ে দেয়া হবে। টিকেট থাকলে “Purchase ticket”  বাটন ক্লিক করতে হবে।
৭।  ক্রেডিট কার্ড, ক্যাশ কার্ড কিংবা ব্রাক ব্যাংকের একাউন্ট মারফত যাত্রির জমাকজৃত টাকা থেকে টিকেট মূল্য কেটে নেয়া হবে এবং যাত্রীর ই-মেইলে ই-টিকেটটি পাটিয়ে টিকেট নিশ্চিত করা হয়ে থাকে।
৮। ই-মেইল মেসেজ বক্স থেকে প্রেরিত টিকেটটির প্রিন্ট নিয়ে ফটো আইডিসহ ই-টিকেট প্রদত্ত “Ticket Print Information” প্রদান করে সংশ্লিষ্ট সোর্স ষ্টেশন থেকে যাত্রার পূর্বে ছাপানো টিকেট সংগ্রহ করতে হবে।

 

24 COMMENTS

  1. Many thanks to BR for your e-tktng system. I again thank you for the whole tkt purchasing process except the last tkt collection which can be ended taking a print out treated as travelling tkt. Biman and other airlines follow this process. This will reduce the work of booking counter and the passenger can go to the train without collecting the tkt from the counter. Thanks and regards.

Comments are closed.